কিভাবে অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল শুরু করবেন – অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করতে যা যা লাগে

বর্তমানে অ্যামাজনের প্রতি ৪ জন সেলারের মধ্যে ১ জন হোলসেল মডেল প্রোডাক্ট বিক্রি করে। তুলনামূলকভাবে দ্রুত কাজ শুরু ও টাকা আয় করা, কম রিস্কে বেশি লাভ, এবং সহজে ব্যবসা বড় করার সম্ভাব্যতা (স্কেল্যাব্লিটি) ইত্যাদি কারনগুলোর কারনে হোলসেল অ্যামাজন সেলারদের কাছে অধিক পছন্দের একটা মডেল।

তবে অ্যামাজনে একটা সেলার অ্যাকাউন্ট করলেই হোলসেল কাজ শুরু করে দেয়ার জন্য সবকিছু প্রস্তুত হয়ে যাবে ব্যাপারটা এমন নই। হোলসেল মডেলে কাজ করতে ব্যবসা (কোম্পানি/বিজনেস রেজিস্ট্রেশান) সংক্রান্ত কিছু প্রিরেকুইজিট আছে যা আপনাকে কাজ শুরু করা আগেই প্রস্তুত রাখতে হবে।

আর বিজনেস রেজিস্ট্রেশান এর জন্য হয়তো আপনাকে কিছু টাকা খরচ করতে হবে। লোকাল একটা ব্যবসা শুরু করলে বা পাড়ায় একটা দোকান দিলেও আপনাকে একটা ট্রেড লাইসেন্স নিতে হয়, ব্যাপারটা কিছুটা ঐ টাইপ-এর।

[যাদের নিজের বিজনেস রেজিস্ট্রেশান বা ইনভেস্ট করার মত কোন টাকা নাই তাদেরও হতাশ হওয়ার কোন কারন নাই! বিজনেস রেজিস্ট্রেশান বা কোন টাকা ইনভেস্ট না করেও কিভাবে হোলসেল মডেলে কাজ করতে পারবেন তার ধারনাও আর্টিকেলের নিচের দিকে পাবেন।]

তো কথা না বাড়িয়ে সরাসরি আমরা অ্যামাজনে হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করতে যা যা দরকার হবে তা নিয়ে আলোচনায় যায়।

অ্যামাজন এফবিএ হোলসেলসহ আরও দুইটি বিজনেস মডেল (প্রাইভেট লেবেল ও আরবিট্রাজ) এবং এগুলোর সুবিধা ও অসুবিধাগুলো জানতে আমার আগের পোস্ট - “কিভাবে অ্যামাজন থেকে টাকা আয় করবেন?” দেখুন।

কম্পিউটার আর ইন্টারনেট কানেকশান

এই ব্লগ পোস্টটা যারা এখন পড়ছেন সম্ভবত তাদের প্রত্যেকেরই নিজের কম্পিউটার আর ইন্টারনেট কানেকশান আছে (দ্যাট’স অসাম!)। অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল বা যেকোনো ইন্টারনেট কেন্দ্রিক ব্যবসা/কাজ করার জন্য এটা অবশ্যয় দরকার।

অ্যামাজন সেলার অ্যাকাউন্ট

অ্যামাজনে যে মডেলই কাজ শুরু করেন না কেন একটা সেলার অ্যাকাউন্ট লাগবে (অবভিয়াস)।

সেলার অ্যাকাউন্ট করতে গভর্নমেন্ট আইডি (পাসপোর্ট এর স্ক্যান্ড কপি), ব্যাংক স্টেটমেন্ট, আর ক্রেডিট কার্ড লাগে আর বাংলাদেশ থেকে (সম্পূর্ণ বাংলাদেশী আইডি দিয়ে) সেলার অ্যাকাউন্ট করা যায়।

তবে হোলসেল মডেলে কাজ করার জন্য যেহেতু আমেরিকায় বিজনেস রেজিস্টার করার দরকার হয় তাই (আমেরিকান) বিজনেস ইনফর্মেশন দিয়ে অ্যাকাউন্ট করায় ভাল (বিশেষত বিজনেস অ্যাড্রেস এর জন্য)। 

সেলার অ্যাকাউন্ট করার পুরো প্রসেসটা আলাদা একটা পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করবো ইনশাআল্লাহ্‌।

***এখানে দেখানো বিজনেস রেজিস্ট্রেশান এর প্রক্রিয়াটা অ্যামাজন ইউএসএ (amazon.com) মার্কেট এর জন্য। যদি আপনি অন্য কোন দেশে কাজ করেন তাহলে সে দেশের নিয়ম অনুযায়ী আপনাকে বিজনেস রেজিস্ট্রেশান করতে হবে বা দরকারি ডকুমেন্ট এর কিছুটা ভিন্নতা থাকতে পারে।

রেজিস্টার্ড বিজনেস / এলএলসি (LLC)

ব্র্যান্ড/ডিস্ট্রিবিউটররা হোলসেলে শুধুমাত্র লেজিটিমেট বিজনেস এর সাথে কাজ করে। তাই আপনাকে অ্যামেরিকার কোন একটা স্টেটে লিমিটেড কোম্পানি (এলএলসি) সেট করে বিজনেস লাইসেন্স নিতে হবে (সোল প্রোপাইটারশিপ বিজসেন সেট করেও কাজ করা যায় তবে হোলসেলের জন্য লিমিটেড কোম্পানি রিকমেন্ডেড)। কোন ব্র্যান্ড বা ডিস্ট্রিবিউটর হোলসেল অ্যাপ্লিকেশান ফর্ম ফিল আউট করার সময়, আপনাকে আপনার কোম্পানির এই ইনফর্মেশন দিতে হয়। বিজনেস সেটআপ এর ধরনের পার্থক্য সম্পর্কে জানতে দেখুন

Image credit: theaccountancy.co.uk

ইআইএন (EIN)

ইআইএন (Employer Identification Number) বা Federal Tax ID মুলত আপনার বিজনেস এর সোশ্যাল সিকিউরিটি নাম্বার। অনেক সাপ্লায়ার হোলসেল অ্যাকাউন্ট করার সময় এটা দিতে বলে। ইআইএন IRS এর ওয়েবসাইট থেকে ফ্রিতেই রেজিস্ট্রেশন করা যায়।

রিসেল সার্টিফিকেট

আপনার স্টেট (বিজনেস যে স্টেটে) থেকে একটা রিসেল সার্টিফিকেট নিতে হবে। রিসেল সার্টিফিকেট দিয়ে আপনি ব্র্যান্ড, ডিস্ট্রিবিউটর, বা হোলসেল সাপ্লায়ার এর থেকে প্রোডাক্ট ট্যাক্স-ফ্রি কিনতে পারবেন। আর বেশীরভাগ ব্র্যান্ড বা ডিস্ট্রিবিউটর রিসেল সার্টিফিকেট ছাড়া আপনার কাছে প্রোডাক্ট বিক্রিই করবেনা। রিসেল সার্টিফিকেট এর জন্য অ্যাপ্লাই করতে TaxJar গিয়ে আপনার স্টেটে ক্লিক করে তাদের দেয়া ওয়েবসাইটে যাবেন অথবা গুগলে গিয়ে “your state” আর “resell certificate” সার্চ দিয়ে প্রথম পেইজে যে লিংকগুলো পাবেন সেখান থেকে অ্যাপ্লাই করতে পারবেন।

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও ক্রেডিট কার্ড

হোলসেল সাপ্লায়ারদের প্রোডাক্ট এর পেমেন্ট দেয়ার জন্য আপনার একটা বিজনেস ব্যাংক অ্যাকাউন্ট আর ক্রেডিট কার্ড লাগবে। বেশিরভাগ সাপ্লায়ার ক্রেডিট কার্ড কিংবা ওয়ার ট্র্যান্সফার পেমেন্ট প্রিফার করে, তবে কিছু সাপ্লায়ার পেপ্যালেও পেমেন্ট একসেপ্ট করে।

কমার্শিয়াল অ্যাড্রেস, ফোন নাম্বার, প্রোফেসনাল ইমেইল, ওয়েবসাইট

উপরল্লেখিত বিষয়গুলো ছাড়াও হোলসেল মডেলে কাজ করতে কমার্শিয়াল অ্যাড্রেস লাগবে সেখানে সাপ্লায়াররা আপনার প্রোডাক্ট শিপ করবে (আপনার ডেলিভারি অ্যাড্রেস আর ক্রেডিট কার্ডের অ্যাড্রেস একই হতে হবে এমন শর্তও কিছু সাপ্লায়ার এর থাকে)। সাপ্লায়ারদের সাথে যোগাযোগ এর জন্য ফোন নাম্বার আর প্রোফেসনাল ইমেইল (ব্র্যান্ডেড) লাগবে। আর একটা ওয়েবসাইট থাকাও বেশ দরকারি (প্রোফেসনাল ইমেইল আর ওয়েবসাইট সাপ্লায়ারের থেকে অ্যাপ্রোভাল পাওয়ার সম্ভাব্যতা বাড়াই)

বিজনেস রেজিস্ট্রেশন এর জন্য (এলএলসি, রিসেল সার্টিফিকেট, ইআইএন, বিজনেস ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, ক্রেডিট কার্ডসহ যা যা লাগে) আপ্রক্স $১০০০ (কিছু কম বা বেশি) এর মত খরচ হতে পারে (সার্ভিস প্রোভাইডার ভেদে খরচ এর তারতম্য হতে পারে)।

আমি নিজে ইউএসএ-তে বিজনেস রেজিস্ট্রেশন করিনি তাই খরচ এর ব্যাপারে দেয়া তথ্য একিউরেট নাও হতে পারে। আর অবশ্যই আমি লিগ্যাল বা ট্যাক্স সংক্রান্ত অ্যাডভাইস দিচ্ছিনা বা দেয়ার উপযুক্ত নইও। আপনার নিজের পরিস্থিতি/অবস্থার প্রেক্ষিতে যথাপযুক্ত অ্যাডভাইস পাওয়ার জন্য কোন আইনজীবী বা ট্যাক্স প্রোফেসনাল (CPA) এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

আপনি যে স্টেটে বিজনেস রেজিস্ট্রেশন করতে চান তা গুগলে গিয়ে সার্চ করলে অনেক সার্ভিস প্রোভাইডার পাবেন। যেমন আপনি ফ্লোরিডায় বিজনেস রেজিস্ট্রেশন করতে চাইলে, ‘how to start an LLC in Florida’, ‘Florida LLC registered agent’ ইত্যাদি সার্চ দিয়ে একটু ঘাঁটাঘাঁটি করে দেখতে পারেন।

আমেরিকায় বিজনেস রেজিস্ট্রেশন এর জন্য আমাদের দেশী সার্ভিস প্রোভাইডারও আছে, বিজনেস গ্লোবাইলজার নামের কোম্পানির সাথে আমার কথা হয়েছিল তবে যেহেতু সার্ভিস নেয়া হয়নি তাই শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে উনাদের সার্ভিস এর ব্যাপারে বলতে পারছি না।

এগেইন যার থেকেই সার্ভিস নেন না কেন অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল এর জন্য যা যা লাগবে (উপরে উল্লেখ করা হয়েছে) তা দিতে পারবে কিনা আর সে অনুযায়ী প্রাইস কত হবে আর তাদের বিজনেস রেপুটেশন (রিভিউ, টেস্টিমনিয়াল, ইত্যাদি দেখে) এর ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে নিয়ে সার্ভিস অর্ডার করবেন।

আর হ্যাঁ আমি নিজে বিজনেস রেজিস্ট্রেশন না করে কিভাবে হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করেছি আর এখনও করছি সে সম্পর্কে পোস্টের শেষের দিকে জানতে পারবেন।

ডিসক্লেইমার

পুঁজি/টাকা

‘টাকায় টাকা আনে’ যেমনটি লোকে বলে আর হোলসেল এর ক্ষেত্রেও বিষয়টা তাই, যতবেশি ইনভেস্ট করা হবে সেই অনুপাতে বিজনেস এর সাইজ বড় হবে বা স্কেল করা যাবে। তবে অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল শুরু করতে অনেক বেশি ইনভেস্টমেন্ট লাগবে ব্যাপারটা এমন নয়। অল্পপুঁজিতেও ($৫০০০ বা এর কমেও) হোলসেল শুরু করা যেতে পারে।

Image credit: mydigitrade.com

হ্যাঁ বেশীরভাগ ডিসট্রিবিউটর এর ওপেনিং অর্ডার এর জন্য মিনিমাম একটা কুয়ান্টিটি থাকে। এখন পর্যন্ত আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতায় শুধু একটাই ডিসট্রিবিউটর পেয়েছিলাম যাদের ওপেনিং (প্রথম) অর্ডার এর জন্য মিনিমাম কুয়ান্টিটি $৫০০০ ছিল, তবে অধিকাংশে ডিসট্রিবিউটর এর ক্ষেত্রে এটা $২০০-$৫০০ এর বেশি নয়। আর কোন ডিসট্রিবিউটর থেকে প্রথম অর্ডার এর পরবর্তী অর্ডারগুলোতে মিনিমাম কুয়ান্টিটি সাধারণত থাকেনা বা অনেক কম হয়।

তাই বিজনেস সেটআপ এর খরচসহ $৫০০০ মত বাজেট নিয়ে হোলসেল শুরু করে সেখান থেকে রিইনভেস্ট করে ব্যবসাকে বড় করা যায়। তবে এটা কোন বাঁধাধরা বাজেট নয় আরও কম বাজেটেও শুরু করা যেতে পারে তবে সেক্ষেত্রে কোনসাইডারেবল অ্যামাউন্টের প্রফিট আসতে হয়তো একটু বেশি সময় লাগবে।

প্রফিটেবল প্রোডাক্ট

ব্র্যান্ড বা ডিস্ট্রিবিউটর এর থেকে কোন প্রোডাক্ট হোলসেলে কিনতে পারলেই যে প্রোডাক্টটা প্রফিটেবল হবে বা অ্যামাজনে প্রফিটসহ বিক্রি করা যাবে ব্যাপারটা এমন নয়। প্রফিটেবল প্রোডাক্ট খুঁজে বের করার আর সাপ্লায়ার (ব্র্যান্ড, ডিস্ট্রিবিউটর) এর কাছে হোলসেল অ্যাকাউন্ট ওপেন/প্রোডাক্ট সোর্স করার কিছু সুনির্দিষ্ট কলাকৌশল আছে। তাই অ্যামাজনে প্রফিটসহ বিক্রি করা যাবে শুধু এমন প্রোডাক্টই খুঁজে বের করে অর্ডার করতে হবে (কাজ শুরু করার আগে এটা কিভাবে করতে অবশ্যয় অবশ্যয় জানতে হবে)।

কিভাবে প্রফিটেবল প্রোডাক্ট খুঁজে বের করবেন আর সাপ্লায়ার এর সাথে হোলসেল অ্যাকাউন্ট ওপেন করবেন (বিজনেস রিলেশানশিপ তৈরি করবেন) তা পরবর্তী ব্লগপোস্টগুলোতে এগুলো শেয়ার করবো ইনশাআল্লাহ্‌।

ইংলিশ প্রফিসিয়েন্সি

হোলসেল অ্যাকাউন্ট ওপেন করার জন্য সাপ্লায়ার এর সাথে ইমেইল বা ফোনে যোগাযোগ করতে হয়। পরবর্তীতে কোন সাপ্লায়ারদের সাথে প্রোডাক্ট অর্ডার করার জন্য যোগাযোগ রাখতে হয়। যেহুতু আমরা ইংলিশ মার্কেটে (অ্যামাজন ইউএসএ) কাজ করব আর সাপ্লায়ারদের ভাষা ইংলিশ তাই সফলভাবে হোলসেল অ্যাকাউন্ট খুলাসহ ওভারঅল বিষয়ে ভালোভাবে যোগাযোগ আর ব্যবসার কার্জ সম্পাদনের জন্য ইংলিশে ভাল যাওয়া জরুরী।

অনুরুপভাবে, কেউ নন-ইংলিশ মার্কেট যেমন – জার্মানি, নেদারল্যান্ড, ইটালি, স্পেইন, ইত্যাদি মার্কেটে কাজ করলে তাকে সংশ্লিষ্ট দেশের ভাষাই পারদর্শী হতে হবে বা পারদর্শী কাউকে হায়ার করতে হবে।

নিজের বিজনেস সেটআপ বা টাকা ইনভেস্ট না করে কি হোলসেল মডেলে কাজ করা যায়?

অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল মডেলে নিজের বিজনেস সেটাআপ বা কোন টাকা ইনভেস্ট না করেও বিকল্প আরও দুই উপায়ে কাজ করতে পারেন।

১. পার্টনারশিপ

ইনভেস্ট করার মত ক্যাপিটাল আছে এমন কোন পার্টনার খুঁজে তার সাথে প্রফিট শেয়ারিং এর ভিত্তিতে কাজ করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনি আপনার স্কিল আর সময় দিয়ে ওভারঅল কাজের দিকটা দেখবেন আর আপনার ইনভেস্টমেন্ট পার্টনার বিজনেস সেটআপসহ ইনভেন্টরি (প্রোডাক্ট) এর খরচ এর জন্য ইনভেস্ট করবেন।

হিন্টঃ আমেরিকা কিংবা ইউকে, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, বা ইউরোপের কোন দেশে (অ্যামাজন মার্কেটপ্লেস আছে) আপনার পরিচিত কেউ থাকলে আর অনলাইন কেন্দ্রিক কাজ/বিজনেসে ইনভেস্ট করতে আগ্রহী হলে তাদের সাথে যোগাযোগ করে আপনার বিজনেস মডেল নিয়ে আলোচনা করে দেখতে পারেন। (আপনার পার্টনার সংশ্লিষ্ট দেশগুলোতে থাকলে বিজনেস সেটআপ এর প্রসেসটা সহজ হবে)

আমি নিজে পার্টনারশিপে অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করেছিলাম (এখনও করছি)। অ্যামেরিকার ফ্লোরিডার আমার এক ক্লাইন্ট (বর্তমানে বিজনেস পার্টনার) এর সাথে পার্টনারশিপে হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করায় বিজনেস সেটআপ এর যে প্রসেস তার মধ্য দিয়ে যেতে হয়নি (আগে থেকেই তার নিজের বিজনেস এর জন্য এলএলসি, রিসেল সার্টিফিকেট, ইআইএন সহ দরকারি প্রায় সব জিনিশই ছিল), এমনকি অ্যামাজন সেলার অ্যাকাউন্টও সে নিজে ক্রিয়েট করেছিল (আমি প্রসেস্টা বলে দিয়েছিলাম)।

এখন প্রোডাক্ট রিসার্চ থেকে শুরু করে অ্যামাজন ওয়ারহাউসে প্রোডাক্ট পাঠান পর্যন্ত এর মধ্যকার যাবতীয় কাজ আমি আমরা করি আর তার ক্রেডিট কার্ড ইউজ করে ইনভেন্টরি অর্ডার করি (অর্থাৎ টাকা ইনভেস্টমেন্ট তার আর কাজ আমার)।

উল্লেখ্য, আমরা ৫০-৫০% প্রফিট শেয়ারিং বেসিসে কাজ করছি। আপনার ইনভেস্টমেন্ট পার্টনার এর সাথে প্রফিট শেয়ার এর পারসেন্টেজ কত হবে তা আপনার আর ক্লাইন্টের পারস্পারিক সমঝোতা, অবস্থার ইত্যাদির উপর নির্ভর করবে।

প্রো-টিপঃ ফিজিক্যাল স্টোর আছে এমন কারো সাথে যদি পার্টনারশিপ করতে পারেন তাহলে বাড়তি কিছু সুবিধা পাবেন। ১. তার নিজের স্টোর থাকায় অলরেডি তার কিছু সাপ্লায়ার থাকবে যাদের প্রোডাক্টগুলো আপনি অ্যামাজন সেল করা শুরু করে দিতে পারবেন। ২. ব্র্যান্ড বা ডিসট্রিবিউটররা ফিজিক্যাল স্টোর এর সাথে কাজ করা প্রিফার করে পক্ষান্তরে অ্যামাজন বা ইকমার্স-অনলি সেলারদের অনেক সাপ্লায়ার অ্যাপ্রোভাল দিতে চাইনা। ফিজিক্যাল স্টোর থাকলে সাপ্লায়ারদের সাথে হোলসেল অ্যাকাউন্ট করার যে বাধা সেটা তেমন আর থাকেনা।

২. ফ্রিল্যান্সিং

ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোতে অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল কাজের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। জনপ্রিয় ও সবচাইতে বড় ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসগুলোর মধ্যে অন্যতম আপওয়ার্ক প্রায় প্রতিদিনই নতুন নতুন অনেক জব পোস্ট হয়। আপনার যদি অ্যামাজন এফবিএ হোলসেল মডেলে কাজের স্কিল থাকে তাহলে আপওয়ার্কে অ্যাকাউন্ট করে জবে বিড করতে পারেন (আপওয়ার্ক ছাড়াও ফাইভারারসহ প্রায় সব মার্কেটপ্লেসেই কাজের ডিম্যান্ড আছে)। আর অনলাইন কমিউনিটিগুলো থেকেও ভাল কাজের অফার পাওয়া যায়।

আপওয়ার্ক জব সার্চ স্ক্রীনশট

প্রথম দিকে হয়তো একটু কম রেইট/প্রাইসে কাজ পাবেন (ফ্রেশার হলেও চলবে এমন কাইন্টের বাজেট নরমালি একটু কম হয়) তবে সময়ের সাথে আপনার দক্ষতা, অভিজ্ঞত, ও পোর্টফলিও বৃদ্ধির সাথে সাথে আপনার কাজের রেইটও বাড়াতে পারবেন।

আপনি যদি ইংলিশে তেমন ভাল না হন সেক্ষেত্রে উপায় কি?

ব্র্যান্ড বা ডিস্ট্রিবিউটরদের সাথে হোলসেল অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য আপনার ইংলিশ কমিউনিকেশনে ভাল হওয়াটা দরকারি তবে অপরিহার্য কিংবা ইংলিশে ভাল না হলে হোলসেল মডেলে কাজ করতে পারবেন না ব্যাপারটা এমন নই। এক্ষেত্রে ইংলিশ কমিউনিকেশনে ভাল এমন কাউকে হায়ার করে বা পার্টনার হিসেবে নিয়ে টিম আকারে কাজ করতে হবে।

আপনার ক্লাইন্ট বা কাজ বাড়লে, এমনিতেই আপনাকে কিছু লোক হায়ার করতে হবে বা টিম গঠন করে কাজ করতে হবে। টিম গঠনের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন কাজের পার্ট এর জন্য ভিন্ন ভিন্ন পজিশন ক্রিয়েট করে বা ডিপার্টমেন্টে ভাগ করে কাজ করতে পারেন। যেমন, প্রোডাক্ট অ্যান্ড ব্র্যান্ড/ডিস্ট্রিবিউটর রিসার্চার, সাপ্লায়ার অ্যান্ড পারচেজিং ম্যানেজার, পারচেজ অর্ডার ক্রিয়েশন, শিপমেন্ট, স্টোর ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি।

ইংলিশে ভাল এমন কাউকে ‘সাপ্লায়ার অ্যান্ড পারচেজিং ম্যানেজার’ পজিশনে নিয়ে ব্র্যান্ড বা ডিস্ট্রিবিউটর এর সাথে যোগাযোগ করা, হোলসেল অ্যাকাউন্ট খোলা, প্রোডাক্ট অর্ডার প্লেসমেন্টসহ সাপ্লায়ারের সাথে যোগাযোগের যাবতীয় কাজ করাতে পারেন।

আজকের মত এ পর্যন্তই। আশাকরি এই ব্লগপোস্ট থেকে হোলসেল মডেলে কাজ শুরু করার আগে আপনার যা যা লাগবে তার একটা ধারনা পেয়েছেন। কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্টে জানাবেন আমি উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ্‌। আর ব্লগপোস্টটা দরকারি বা কারো কাজে লাগতে পারে মনে হলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন। 🙂

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *